দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্ত ভিআইপিরা

শনিবার, এপ্রিল ৩, ২০২১


ঢাকা : করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরুর পর আক্রান্ত হচ্ছেন রাজনীতিবিদ, আমলা, চিত্রনায়কসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের দায়িত্বশীলরা। আক্রান্ত তালিকায় আরো আছেন সরকারের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবসহ স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা। সেই সঙ্গে আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের স্ত্রী, সন্তানরাও।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সেবা বিভাগের সচিব মো. আব্দুল মান্নান। শুক্রবার তাকে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত বছরের ৪ জুন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সেবা বিভাগের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি।

শুক্রবার দুপুরে সচিবের একান্ত সচিব (উপসচিব) মোহাম্মদ রাশেদ হোসেন চৌধুরী বলেন, আমি নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১২ দিন হাসপাতালে থেকে বাসায় ফিরলাম। এর আগে গত ২৮ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে করোনার টিকা নিয়েছিলেন আব্দুল মান্নান। গত বছরের ১৪ জুন করোনা আক্রান্ত হয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আবদুল মান্নানের স্ত্রী কামরুন নাহার।

করোনায় আরো আক্রান্ত হয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। গত বৃহস্পতিবার তিনি করোনা আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে তিনি নিজেই এ কথা জানান। অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা তার স্ট্যাটাসে লেখেন, বিরতিহীনভাবে একটানা ৩৬৫ দিনের বেশি অফিস করার পর উপসর্গসহ করোনা আক্রান্ত হলাম। মহান আল্লাহ এই মহামারী থেকে মানবজাতিকে, বাংলাদেশের মানুষকে রক্ষা করুন। আমিন।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা দেশের প্রথম পাঁচ টিকা গ্রহণকারীর একজন। দেশে গত ২৭ এবং ২৮ জানুয়ারি পরীক্ষামূলকভাবে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধী টিকা দেয়া হয়। অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা ২৭ জানুয়ারি টিকা নেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমও করোনাতে আক্তান্ত হয়ে বাসায় আইসোলেশনে আছেন। স্বাস্থ্য অধিদফতরের আরো কয়েক কর্মকর্তা-কর্মচারীও করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির জ্যেষ্ঠ সদস্য সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। সঙ্গে তার স্ত্রী বিলকিস আক্তার হোসেনও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। তাদের গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিএনপির আরেক নেতা রুহুল কবির রিজভী হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তি আছেন। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে আইসিইউতে নেয়া হয়।

বিএনপির স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, রুহুল কবির রিজভীর কাশি ও জ্বর থাকায় অক্সিজেন লেবেল কমে গেলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শে ইনজেকশন দেয়া হয়। পরে অক্সিজেন লেবেল আরো কমে যাওয়ায় সঙ্গে সঙ্গে তাকে আইসিইউতে নিয়ে যাওয়া হয়। উল্লেখ্য, কয়েক দিন ধরে জ্বরে ভোগার পর গত ১৬ মার্চ করোনা টেস্ট করা হলে রিজভীর শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়ে। এর পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার পাওয়া তৃতীয়বারের রিপোর্টেও তিনি করোনা পজিটিভ বলে জানা গেছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বরেণ্য গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার। শুক্রবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান।

তিনি বলেন, বিএনপির এই দুই নেতা করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিজ নিজ বাসায়ই চিকিৎসা নিচ্ছেন। তারা দেশবাসীর কাছে সুস্থতা কামনায় দোয়া চেয়েছেন। তারা ছাড়াও করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন বিএনপি নেতা সলিমা রহমান, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

অপরদিকে গাজীপুরের কাপাসিয়ার সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। রক্তে অক্সিজেন কমে যাওয়ায় এবং শরীরে জ্বর-ঠাণ্ডা-সর্দি থাকায় গত মঙ্গলবার দুপুরে তাকে রাজধানীর ইউনাইডেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলে কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. শহীদুল্লাহ জানান। তার দুই ছেলে ও পুত্রবধূরাও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তারা বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।

সিমিন হোসেন রিমি রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার আগে ২৫ মার্চ করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য ঢাকায় নমুনা দেন। তার নমুনা পরীক্ষায় ফল পজিটিভ এলে রাষ্ট্রীয় ওই অনুষ্ঠানে যোগ না দিয়ে আইসোলেশনে চলে যান। রিমি গাজীপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য। তার বাবা দেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ। সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজের বোন তিনি।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ঢাকা-৭ আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিম। বর্তমানে তিনি রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হাজী সেলিমের একান্ত সহকারী মহীউদ্দিন মাহমুদ বেলাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, করোনা উপসর্গ দেখা দিলে গত ২১ মার্চ নমুনা পরীক্ষা করেন হাজী সেলিম। রিপোর্টে পজিটিভ আসে। এরপর আবারো করোনা পরীক্ষা করানো হলে দ্বিতীয় দফায়ও তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পরে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন। বেলাল জানান, হাজী সেলিমের শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভালো আছে। তিনি সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি। মির্জা আজম নিজেই জামালপুরের সাংবাদিকদের কাছে তার করোনার আক্রান্তের খবর নিশ্চিত করেছেন। করোনা পজিটিভ হলেও তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে। বর্তমানে অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে ঢাকার ন্যাম ভবনের নিজ বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন তিনি। সুস্থতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন এই সাবেক প্রতিমন্ত্রী।

সূত্র জানায়, ১ এপ্রিল জাতীয় সংসদের দ্বাদশ অধিবেশনকে সামনে রেখে মির্জা আজম এমপি গত মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে জাতীয় সংসদ ভবনের মেডিকেল সেন্টারে করোনার নমুনা দেন। সন্ধ্যার পর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে তার কোভিড-১৯ পজিটিভ আসে।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এখন তার রাজধানীর বাসাতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। গত বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে তার করোনার পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে।

নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ডা. জাহেদ উর রহমান বলেন, মান্না ভাই শারীরিকভাবে ভালো আছেন। তবে সন্ধ্যার মধ্যে যেকোনো হাসপাতালে তাকে ভর্তি করানো হবে। শারীরিক অবস্থা ভালো থাকলেও আমরা রিস্ক নিতে চাচ্ছি না। যেহেতু এখন যারা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন তাদের হঠাৎ করে অক্সিজেন লেভেল কমে যায়। সেজন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হবে।

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমীর মকবুল আহমাদও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। দলটির নেতাকর্মীরা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়ে তার জন্য দোয়া কামনা করেছেন।

চিত্র নায়ক রিয়াজও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবার দুপুরে রিয়াজ তাঁর করোনায় আক্রান্তের সংবাদটি জানান। মুম্বাইয়ে ‘বঙ্গবন্ধু’ ছবির শুটিংয়ে অংশ নেয়ার কথা ছিল তার। দেশ ত্যাগ করার আগে করোনা পরীক্ষা করার নিয়ম রয়েছে। পরীক্ষার ফল হাতে এলে রিয়াজ জানতে পারেন, তাঁর কোভিড-১৯ পজিটিভ। এরপর বাসায় চিকিৎসা নিতে শুরু করেন জনপ্রিয় এই অভিনয়শিল্পী। করোনায় আক্রান্ত হলেন দেশের কিংবদন্তি অভিনেতা, পরিচালক ও সাহিত্যিক আবুল হায়াত। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ অভিনেতার মেয়ে নাতাশা হায়াত তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন৷ তিনি জানান, গতকাল ৩১ মার্চ রাত থেকে হাসপাতালে আছেন আবুল হায়াত৷ বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল৷ তিনি চিকিৎসকদের সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

এদিকে দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও নির্মাতা আফসানা মিমি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় বহস্পতিবার (১ এপ্রিল) এই অভিনেত্রীকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। তার পারিবারিক ঘনিষ্টজন সাংবাদিক নজরুল সৈয়দ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আফসানা মিমির শরীর খারাপ হওয়ায় গত সপ্তাহে তার করোনার পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্টে ‘কোভিড-১৯’ পজিটিভ আসে। এরপর থেকে তিনি নিজ বাসাতেই আইসোলেটেড ছিলেন।

হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে খালেদা জিয়াকে

করোনা উপসর্গ নিয়ে উপসচিব মারুফ হাসানের ইন্তেকাল

সারাদেশে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৯৪ জনের মৃত্যু

মৃত্যুর মিছিলে ভারত, একদিনে আক্রান্ত ২ লাখ প্রায়

করোনার মৃত্যুর মিছিলে কবর খুঁড়তে আধুনিক যন্ত্রের ব্যবহার

বায়তুল মোকাররম উড়িয়ে দিলে দুর্নীতিবাজ কমে যাবে: কাদের মির্জা

হাতিয়ায় কঠিন লকডাউন ভঙ্গ করে ইউএনওর ইফতার পার্টি

সুবর্ণচরে সুইসাইড নোট লিখে স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা

হাতিয়ায় দিনব্যাপী ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

হাতিয়ায় আওয়ামীলীগ দলীয় চেয়ারম্যানপ্রার্থীর দুই কর্মীকে কুপিয়ে জখম

দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিয়েও করোনা আক্রান্ত সাংসদ বাদশা

নোয়াখালীতে ৭৬ মামলায় ১লক্ষ ৫হাজার টাকা জরিমানা

করোনায় মারা গেলেন আবদুল মতিন খসরু

সম্মিলিত শক্তি দিয়ে করোনাকে পরাজিত করতে হবে- কাদের

মামুনুল হকের ‘স্ত্রী’রা নিখোঁজ কেন ?

এই সম্পর্কিত আরো