ভারতে করোনা হাসপাতালে আগুন, আইসিইউর ১৩ রোগীর মৃত্যু

শুক্রবার, এপ্রিল ২৩, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি থাকা অন্তত ১৩ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার ভোর রাতে রাজ্যের রাজধানী মুম্বাই থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে ভিরার শহরে বিজয় বল্লভ হাসপাতালে এই অগ্নিকাণ্ড হয়েছে। এর আগে হাসপাতালের বাইরে অক্সিজেন ট্যাঙ্কার লিক হয়ে অক্সিজেনের অভাবে ২৪ করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। আনন্দবাজার।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে মহারাষ্ট্র। অভূতপূর্ব মাত্রায় সংক্রমণ বাড়তে থাকার মধ্যে এই হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো। বিজয় বল্লভ হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দিলিপ শাহ জানিয়েছেন, আগুন লাগার সময়ে হাসপাতালটিতে প্রায় ৯০ জন রোগী ভর্তি ছিলেন। আগুন লাগার পর রোগী এবং চিকিৎসা কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

আবিনাশ পাতিল নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, ‘আমি রাত তিনটার দিকে এক বন্ধুর ফোন পাই, তার শ্বাশুড়ি ওই হাসপাতালে ভর্তি ছিলো। সেখানে পৌঁছে আমি হাসপাতালের বাইরে দমকলের গাড়ি দেখতে পাই। নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র থাকায় দ্বিতীয় তলায় ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন ছিলো। মাত্র দুই জন নার্স দেখেছি, কোনও ডাক্তার ছিলো না। আধঘণ্টা পর দমকলকর্মীরা আগুন নিভিয়ে ফেলে। আমি আট থেকে দশটি মৃতদেহ দেখতে পেরেছি।’

উল্লেখ্য, আগুন লাগার সময় হাসপাতালে ৯০ জন রোগী চিকিৎসাধীন ছিলেন বলেন জানান তিনি।

হাসপাতালের জানালা ভেঙে পালাল ৩১ করোনা রোগী

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় ভারতে চিকিৎসা ব্যবস্থা এমনিতেই ভেঙে পড়েছে। অনেকে চিকিৎসা নিতে চাইলেও হাসপাতালে পাচ্ছেন না কাঙ্ক্ষিত শয্যা বা জায়গা। তবে এরপরও হাসপাতালে যারা জায়গা পেয়েছিলেন, তাদেরকে ‘সৌভাগ্যবানই’ বলা চলে।

কিন্তু করোনায় আক্রান্ত সেই সৌভাগ্যবানদেরই অনেকে পালিয়েছেন হাসপাতালের জানালা ভেঙে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলার অরুন্ধতী নগরের পিআরটিআই কোভিড-১৯ কেয়ার সেন্টার হাসপাতালে।

ভারতীয় বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) রাতে পুলিশের নজর এড়িয়ে ওই করোনা হাসপাতালের জানালা ভেঙে ৩১ জন রোগী পালিয়ে যান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পশ্চিম ত্রিপুরার অরুন্ধতী নগরের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শৈলেষ কুমার যাদব।

ত্রিপুরা সদরের সাবডিভিশনাল পুলিশ অফিসার অনির্বাণ দাস জানিয়েছেন, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান এবং পশ্চিমবঙ্গসহ আরও বেশ কয়েকটি রাজ্য থেকে ত্রিপুরায় আসা যাত্রীদের করোনা শনাক্তকরণ পরীক্ষা করা হয়েছিল। পরীক্ষায় প্রায় ৫০ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপরই সংক্রমণ রুখতে তাদের ওই পিআরটিআই কোভিড কেয়ার হাসপাতালে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়।

ভারতীয় মিডিয়া বলছে, ওই ৫০ জন রোগীর মধ্যে মোট ৩১ জন করোনা হাসপাতালের জানালা ভেঙে পুলিশের নজর এড়িয়ে পাইপ বেয়ে নিচে নামেন এবং সেখান থেকে পালিয়ে যান। পরে হাসপাতালের অনেক বেড খালি থাকায় বিষয়টি নজরে আসে। শুরু হয় ব্যাপক তল্লাশি। যদিও এখনো পর্যন্ত পলাতক করোনা রোগীদের কারও খোঁজ মেলেনি।

এর আগেও বেশ কয়েকজন রোগী পালানোর চেষ্টা করায় আগেভাগেই হাসপাতালের গেটে পুলিশি পাহারাও বসানো হয়। তবে বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) রাতে কীভাবে একসঙ্গে এত করোনা রোগী পালিয়ে গেল তা নিয়েও উঠছে প্রশ্ন।

এ দিকে এ ঘটনায় রাজ্যজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। রাজ্যের প্রায় সকল রেলওয়ে স্টেশন এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে। পলাতক করোনা রোগীদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশও।

 


বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট মেশিন ব্যবহারের অনুমোদন

নোয়াখালীতে আরও ২২৮জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১

বেগমগঞ্জে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার,স্বামী আটক

হাতিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় জাহাজের লষ্কর নিহত, বাবুর্চি আহত

দেশে করোনায় ২৩৭ মৃত্যু, মোট মৃত্যু ২০ হাজার ছাড়াল

নিঝুম দ্বীপে বরের বয়স ৭১, কনের আত্মহত্যা

ভাসানচরে সাগর কুলে যুবকের মরদেহ, ৪ রোহিঙ্গা যুবক আটক

সাগরে ভাসতে থাকা ট্রলার থেকে ১১ জেলে উদ্ধার

একনেকে ২ হাজার ৫৭৫ কোটি টাকার ১০ প্রকল্প অনুমোদন

হাতিয়ায় কাউন্সিলরের মারধরের ২দিন পর ব্যবসায়ীর মৃত্যুর অভিযোগ

নোয়াখালীতে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গ্রন্থ ও মুক্তিযুদ্ধ ভাস্কর্যের মোড়ক উন্মোচন

চাটখিলে নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে গৃহ শিক্ষক আটক

নোয়াখালীতে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ৩০.৩৮ শতাংশ, মৃত্যু ১

টিকা প্রদানে উৎসাহিত করতে কাজ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

করোনায় রেকর্ড ২৫৮ জনের মৃত্যু

এই সম্পর্কিত আরো