পুলিশের ওপর মানুষের আস্থা বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী

রবিবার, জানুয়ারি ২৩, ২০২২

 


ঢাকা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আন্দোলনের নামে বিএনপি ও জামায়াতের জ্বালাও-পোড়াওয়ের সময় আমাদের পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জনগণের জানমাল রক্ষা করেছে। দেশের মানুষের নিরাপত্তা দিয়েছে। দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়া বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবিলাতেও আমাদের বাহিনীর সদস্যরা জীবনের ঝুঁকি নিয়েছে। পুলিশের এই যে সেবামুখী কার্যক্রম সে কারণেই পুলিশের প্রতি মানুষের আস্থা বেড়েছে।

এ সময় দেশের গণতন্ত্রকে সমুন্নত রাখতে পুলিশকে আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তিনি।

আজ রবিবার (২৩ জানুয়ারি) রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনে পুলিশ সপ্তাহ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

সরকারের নেওয়া নানা উন্নয়নমূলক পদক্ষেপে পুলিশ বাহিনী এখন প্রযুক্তিনির্ভর বাহিনীতে পরিণত হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, পুলিশের সাহসিকতার জন্যই ৭৫ এর ১৫ আগস্ট যারা আহত হয়েছিলেন, তারা বেঁচে গিয়েছিলেন। পুলিশ বাহিনীকে তাদের এই সাহসিকতা অব্যাহত রাখতে হবে। দেশের অভ্যন্তরীণ শান্তি ও স্থিতিশীলতা সমুন্নত রাখতে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। বিশ্বাস করি পুলিশ আরো জনবান্ধব হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুলিশ বাহিনীর প্রশংসা ও পুলিশ সদস্যদের জন্য গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে বলেন, নতুন বিধিমালায় ৩ হাজারের বেশি কনস্টেবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। রেশন শতভাগ নিশ্চিত করেছি, চাকরিরত অবস্থায় মৃত্যু হলে ভরণপোষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পুলিশের জন্য নতুন যুগোপযোগী মডিউল করা হয়েছে।

তিনি বলেন, জরুরি সেবা ৯৯৯ জনগণের আস্থা ও বিশ্বাস সৃষ্টি করেছে। এক্ষেত্রে পুলিশ যথাযথ ভূমিকা রাখছে। রোহিঙ্গা সংকটে পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে। করোনা সংকটে মানুষের কাছে খাবারও পৌছে দিয়েছে। যখন আত্মীয়-স্বজনরা লাশ ফেলে গিয়েছিল, পুলিশ বাহিনী নিজের ঝুঁকি নিয়ে লাশ দাফন করেছে। পুলিশের নারী কনজিনটেন্টও দেশ সেবায় প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখেছে।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রভাব থাকার পরও আমরা জাতিকে এগিয়ে নিতে যাই। আমরা প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছি। আমরা আধুনিক জ্ঞান সম্পন্ন করে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে চাচ্ছি। আমরা বলেছিলাম, ২০২১ সালে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে গড়ে তুলব। ২০২১ সালে আমরা দেশকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করেছি। আমরা বাংলাদেশকে সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলব। বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্যকে আমরা পরিবর্তন করব।

পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে গুরুতর মামলা উদঘাটনসহ কৃতিত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য ২০২০ সালে ১১৫ জন এবং ২০২১ সালে ১১৫ জনসহ মোট ২৩০ পুলিশ সদস্যকে বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম), বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম)-সেবা, রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম), রাষ্ট্রপতির পুলিশ পদক (পিপিএম)-সেবা পদক দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পুলিশ পদক তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।


চাটখিলে ১৫০০ শিক্ষার্থীর মাঝে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বিতরণ  

নোয়াখালীতে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ, পুলিশের বাধায় ছত্রভঙ্গ

নোয়াখালীতে ৯টি ক্লিনিক সিলগালা

রোববারের মধ্যে অবৈধ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ না হলে ব্যবস্থা

রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিতে চাকরি, বেতন ৭৫০০০

কুসিক নির্বাচন : আচরণবিধি ভেঙ্গে জরিমানা গুনলো রিফাত-কায়সার

চিরনিদ্রায় শায়িত গাফ্‌ফার চৌধুরী

কবিরহাটে বড় ভাইকে পিটিয়ে হত্যা:ছোট ভাই গ্রেফতার

হাতিয়ায় দুইটি ফিসিং ট্রলার জব্দ, ২০ হাজার টাকা জরিমানা

যে পদ্ধতিতে জুনে শুরু হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি

নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস আজ

হাতিয়ায় চোরাই গরুসহ দুইজন আটক

মিজানুর রহমান আজহারীকে নিয়ে স্ট্যাটাস, পদ হারালেন ছাত্রলীগ নেতা

প্রেমের টানে ভারতীয় তরুণী ফেনীতে

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের আগে ঢাবিতে লাশ চায় বিএনপি: কাদের

এই সম্পর্কিত আরো